facebooktwitteryoutube
কম্পিউটার টিপস মোবাইল টিপস আউটসোর্সিং
by দীপজ্যোতি বিশ্বাস - no comments
ওডেস্ক তো আপওয়ার্কে পরিবর্তন হয়ে গেল এবার……

বন্ধুরা প্রথমেই বাংলার প্রজুক্তির পক্ষ থেকে আপনাদের জোন্য রইলো অভিনন্দোন। আসা করি সবাই ভালো আছেন।

আমরা ফ্রিল্যান্সারা সবাই ‘ওডেস্ক’ কে চিনি। তাই তাকে নিয়ে বলার আর কিছু থাকছে না। কিন্তু এত দিন যেখানে কাজ করে এসেছি, তা যদি হঠাৎ পাল্টে যায়, তবে একটু খারাপ লাগেই।

ওডেস্ক-ইল্যান্স গতকাল হঠাৎ করেই হয়ে যায় আপওয়ার্ক। সকলেই এখন ওডেস্কের পরিবর্তে আপওয়ার্ক ব্যবহার করতে পারছেন। বিশ্বের বৃহত্তম ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসটিকে ৫ মে নতুন নাম দিয়ে কার্যক্রম শুরুর ঘোষণা আসে ইল্যান্স-ওডেস্কের কাছ থেকে। এর উদ্যোক্তারা বলছেন, সফটওয়্যার সেবার মতো পেশাজীবীরা এখন অনলাইনে তাঁদের মেধা খাটিয়ে কাজ করছেন। বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকেই যে কেউ অনলাইনে যোগাযোগের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক কাজের বাজারে যুক্ত হচ্ছে। এই বাজারে কাজের মাধ্যমকে একটি নতুন রূপ দিয়ে, কাজের ধরন এবং যোগাযোগের মাধ্যমকে আরও উন্নত করে এগিয়ে নিতে আপওয়ার্ক যাত্রা শুরু করেছে।

আপওয়ার্ক (https://www.upwork.com) নামে নতুন করে যাত্রা শুরু করেছে ইল্যান্স-ওডেস্ক এবং এটি ফ্রিল্যান্স পেশাজীবীদের জন্য সম্পূর্ণ নতুন প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করবে। পুরোনো ওডেস্কের তুলনায় আপওয়ার্কে ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে এবং আনতে থাকবে।

অবশ্য ওডেস্ককে ঢেলে সাজিয়ে নতুন নাম দিয়ে চালু করলেও ইল্যান্স প্ল্যাটফর্মটি আপাতত চালুই থাকছে। কিন্তু তাও বেশি দিন থাকবে না। আমি দু-এক বছর ইলান্স চলে আবার বন্ধ হয়ে যাবে। তবে ইলান্স ব্যবহার কারীদের ভয় নেই। কারন ইলান্স যাওয়ার আগে আমাদের প্রোফাইল গুলো আপওয়ার্কে এড করে দিবে। যার ফলে আপনাদের ইলান্স অ্যাকাউন্টের সকল কিছু আপওয়ার্কে যুক্ত হবে। এই যেমন সকল ঘণ্টা, কাজ এবং ইলান্সে যদি কোন কাজ চলমান অবস্থায় থাকে তবে সে কাজ আপনারা আপওয়ার্ক থেকেই করতে পারবেন।

আপওয়ার্কের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা স্টেফান কারসিয়েল জানিয়েছেন,

‘ফ্রিল্যান্সিং জগতে নতুন একটি অধ্যায় সূচনা করতে যাচ্ছে আপওয়ার্ক। এখন মেধাবী ও দক্ষ পেশাজীবীদের বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকে সহজেই নিয়োগ দিতে পারবে প্রতিষ্ঠানগুলো। বিভিন্ন দেশের ফ্রিল্যান্সাররা ইতিমধ্যেই ইল্যান্স-ওডেস্ক থেকে বছরে ১০০ কোটি মার্কিন ডলারের বেশি উপার্জন করছে। আপওয়ার্কের মাধ্যমে আগামী ছয় বছরের মধ্যেই এই আয় ১০ বিলিয়ন ছাড়িয়ে যাবে। ওডেস্ক নাম বাদ দিয়ে আপওয়ার্ক তৈরির উদ্দেশ্য হচ্ছে বিভিন্ন দেশের ক্লায়েন্ট এবং মেধাবী পেশাজীবীদের মাঝে আগের চেয়ে আরও অনেক দ্রুত যোগাযোগের মাধ্যম তৈরি করা। এর মাধ্যমে একটি প্রতিষ্ঠান মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকে একজন মেধাবী পেশাজীবীকে বেছে নিতে পারবে।

স্টেফান কারসিয়েল আরও জানিয়েছেন,

বিশ্বের বৃহত্তম ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস হলেও আমাদের উন্নতি করার আরও অনেক জায়গা বাকি আছে। সেগুলো নিয়ে কাজ করার সময় এখনই। বিভিন্ন দেশের ক্লায়েন্টরা ইতিমধ্যেই ইল্যান্স-ওডেস্ক ব্যবহার করে বছরে প্রায় ৩০ লাখের বেশি কাজ পোস্ট করছে এবং কর্মী নিয়োগের জন্য মার্কেটপ্লেসে সার্চ অপশনটি ১০ কোটি বারেরও বেশি করছে।

স্টেফান জানান,

‘আমরা নতুন অধ্যায় সূচনা করলাম। এখন ফ্রিল্যান্সারদের জন্য নতুন কাজের সুযোগ বাড়বে। আপওয়ার্কের মাধ্যমে নতুন উদ্ভাবন ও নতুনত্ব এনে অনলাইনে কাজের বাজারকে আরও প্রসারিত করতে কাজ চালিয়ে যাব।

আপওয়ার্কের ফিচারঃ-

আপওয়ার্কের প্রোডাক্ট ম্যানেজমেন্টের ভাইস প্রেসিডেন্ট হেইডেন ব্রাউন জানিয়েছেন,

নতুন এই প্ল্যাটফর্মটিতে কর্মী নিয়োগ পদ্ধতিটিকে সহজ করা হচ্ছে। কারণ, কর্মী নিয়োগ যেকোনো প্রতিষ্ঠানের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কর্মী বাছাই করতে গিয়ে তাঁদের সময় নষ্ট হয়। পরীক্ষিত এবং দক্ষ কর্মী সহজেই খুঁজে নেওয়ার পাশাপাশি নিয়োগের পরবর্তী সময়ে আরও সহজে একত্রে কাজ করার সুযোগ তৈরিতে আপওয়ার্ক কাজ করবে। দ্রুত যোগাযোগ সুবিধা ও আপওয়ার্কের নতুন রিয়াল-টাইম কমিউনিকেশন ফিচারের মাধ্যমে সেই কাজটি কয়েক মিনিটের মধ্যে সম্পন্ন করার সুযোগ তৈরি করে দেওয়া হবে। এ জন্য আপওয়ার্ক স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন পিএইচডি গবেষক দ্বারা তৈরি নতুন কিছু ম্যাচিং এলগরিদম ব্যবহার করবে, ফ্রিল্যান্সাররা নতুন কাজ নেয়ার জন্য প্রস্তুত আছে কিনা সেটার অবস্থান দেখাবে এবং আপওয়ার্কের নতুন মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে সাইটের অনেক কাজ খুব সহজেই করে নেয়ার সুযোগ তৈরি করবে। এ ছাড়াও সরাসরি গ্রুপভিত্তিক যোগাযোগ ছাড়াও আপওয়ার্কে আরেকটি নতুন টুল নিয়ে আসা হচ্ছে মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা সহজেই একজন আরেকজনের সঙ্গে সরাসরি রিয়াল-টাইম যোগাযোগ করতে পারবে।

আপওয়ার্ক ব্যবহারকারী না হলেও যোগাযোগের জন্য বিশেষ ‘চ্যাট টুলটি’ সবার জন্যই উন্মুক্ত করবে আপওয়ার্ক।

সাইট পরিবর্তনের সাথে সাথে টাইম ট্র্যাকারেও বেশ বড়সড় পরিবর্তন আনেছে বলে জানিয়েছে আপওয়ার্ক কর্মকর্তারা। তাদের ভাষ্য মতে, তারা একটি সম্পূর্ণ নতুন টাইম ট্র্যাকার তৈরি করা হবে। তবে তার জন্য আর কিছু সময় লাগবে। বর্তমানে আপওয়ার্কে পূর্বের সেই ওডেস্ক টাইম ট্র্যাকার ব্যবহার করতে বলা হচ্ছে।

আর তাছাড়া আপওয়ার্ক নতুন একটি ফিচার যোগ করেছে। আর তা হল আপনি বর্তমানে নতুন কাজের জন্য আমন্ত্রন গ্রহন করবেন কি না। ঠিক এই রকম। ছবিই কথা বলে। তবে এই ফিচারটি সম্পূর্ণ ভাবে চালু করতে আর কিছু দিন সময় লাগবে।

বাংলাদেশ কান্ট্রি ম্যানেজারের কিছু কথাঃ-

আপওয়ার্কের বাংলাদেশ কান্ট্রি ম্যানেজার সাইদুর মামুন খান জানিয়েছেন,

ওডেস্ক ব্যবহারকারীদের দুশ্চিন্তার কিছু নেই। তাঁদের প্রোফাইল স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপওয়ার্কে চলে যাবে। তবে প্রোফাইল প্রদর্শন ও যোগাযোগের ক্ষেত্রে বড় ধরনের পরিবর্তন এসেছে।
সাইদুর মামুন খান আরও জানান, বর্তমানে উপার্জনের দিক থেকে আপওয়ার্কে ১৮০ টিরও বেশি দেশের মধ্যে সপ্তম অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। বর্তমানে বাংলাদেশে আপওয়ার্কের ৫ লাখের বেশি নিবন্ধিত ব্যবহারকারী রয়েছে। শুরু থকে নিয়ে এই পর্যন্ত আপওয়ার্কে (পূর্বের ইল্যান্স-ওডেস্কে) বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সারদের সম্মিলিত উপার্জন হয়েছে প্রায় ৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (প্রায় ৬৫০ কোটি টাকার কাছাকাছি)। শুধু এই বছরের প্রথম প্রান্তিক বা প্রথম তিন মাসে বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সাররা আপওয়ার্কে কাজ করে দেশে নিয়ে এসেছেন প্রায় ৭.২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ৫৪ কোটি টাকার কাছাকাছি।

শেষ কথা

আমার লেখার মধ্যে যদি কোন ভুল বা সমস্যা থাকে তাহলে কমেন্ট করে যানান। আপনি ইচ্ছে করলে বাংলার প্রজুক্তিতে পোস্ট লিখতে পারবেন। বাংলার প্রজুক্তির সদস্য হতে আমার সাথে যোগাজোগ করুন। আপনাদের যেকোন মতামত আমাকে সংশোধিত হতে এবং আরো ভালো মানের পোস্ট লিখতে উৎসাহিত করবে। সবার সর্বাঙ্গিন মঙ্গল কামনা করে আজ এখানেই শেষ করছি।

সবাই ভালো থাকবেন সোময় পেলে আমার সাইটে ঘুরতে আসার নিমন্ত্রন জানিয়ে শেস করছি।@বাংলার প্রজুক্তি (দীপজ্যোতি বিশ্বাস)

Facebook

Likebox Slider Pro for WordPress